যুক্তরাষ্ট্রে এক সপ্তাহে ৭ হামলা, সর্বশেষ কলোরাডোয় মার্কেটে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ১০

Image

যুক্তরাষ্ট্রে দিন দিন বন্দুক হামলাসহ সহিংস ঘটনা বেড়েই চলেছে। দেশটিতে গত এক সপ্তাহে সাতটি বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে ২০ মার্চ এক দিনে তিনটি হামলা হয়েছে। এসব হামলার কোনোটা আবার এশীয়-আমেরিকানদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষের কারণে ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সিএনএন-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২২ মার্চ কলোরাডো অঙ্গরাজ্যের বাউলডার নগরীর একটি গ্রোসারি মার্কেটে বন্দুকধারীর গুলিতে পুলিশের এক কর্মকর্তাসহ অন্তত ১০ ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় বেলা আড়াইটার দিকে নগরীর কিং শপার্স মার্কেট নামের বড় গ্রোসারি স্টোরে গুলির এ ঘটনা ঘটে।

নগরীর পুলিশ জানিয়েছে, বন্দুকধারীকে গুরুতর আহত অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশের সঙ্গে গুলিবিনিময়ে বন্দুকধারী আহত হয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে। স্থানীয় সময় রাত ১০টা পর্যন্ত বন্দুকধারীর নাম-পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। বেলা ২টা ৪০ মিনিটের দিকে কিং শপার্স মার্কেটে বন্দুকধারী ঢোকেন। তারপর গুলি শুরু হয়।

protmalo.jpg

বন্দুকধারী প্রায় এক ঘণ্টা গ্রোসারি মার্কেটটির ভেতরে ছিলেন। এই সময়ে তিনি উদাম শরীরে গুলি করে লোকজনকে হত্যা করেন। নিহত পুলিশ কর্মকর্তার নাম এরিখ টেলি (৬১) বলে জানানো হয়েছে। নিহত অন্য লোকজনের নাম-পরিচয় এখনো প্রকাশ করেনি পুলিশ। গুলির ঘটনায় তদন্ত চলছে।

এই ঘটনার ঠিক এক সপ্তাহ আগে ১৬ মার্চ জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের আটলান্টায় তিনটি স্পা সেন্টারে এক দুর্বৃত্তের গুলিতে আটজন নিহত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে অন্তত ছয়জন এশীয় নারী। পুলিশ বলেছে, সন্দেহভাজন ওই শ্বেতাঙ্গ হামলাকারীকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

১৮ মার্চ অরেগন অঙ্গরাজ্যের গ্রেসাম সিটিতে এক বন্দুকধারীর হামলায় চারজন গুরুতর আহত হয়েছেন। তাঁদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে পুলিশ এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে। ১৭ মার্চ ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের স্টকটনে গুলির ঘটনা ঘটেছে। সান জোয়াকিন শেরিফের দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, এ ঘটনায় কেউ গুরুতর আহত হয়নি।

২০ মার্চ টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের হাউসটনে একটি ক্লাবে গুলির ঘটনায় পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে পুলিশ। একই দিনে টেক্সাসে ডালাসের একটি নৈশক্লাবে অজ্ঞাত একজন বন্দুকধারীর হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ২১ বছর বয়সী একজন তরুণী নিহত ও সাতজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

২০ মার্চ পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের ফিলাডেলফিয়ায় একটি আবাসিক এলাকায় অবৈধ পার্টিতে গুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে ঘটনাস্থলে একজন নিহত ও পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন।

সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের তথ্য অনুযায়ী, বন্দুকধারীর হামলায় ২০১৯ সালে প্রায় ৪০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। আর চলতি বছর এ ধরনের আরও চারটি ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে গত ৯ জানুয়ারি ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের এভানস্টোনের একজন বন্দুকধারীর গুলিতে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া বন্দুকধারীর হামলায় ২৪ জানুয়ারি ইন্ডিয়ানাপোলিসে পাঁচজন, গত ২ ফেব্রুয়ারি ওকলাহোমার মুসকিজিতে ছয়জন ও ১৩ মার্চ ইন্ডিয়ানাপোলিসে চারজন নিহত হয়েছেন।

পূর্ববর্তী পোস্ট
রিয়েলমি নিয়ে এসেছে ‘গেমিং বিস্ট’ নারজো ৩০এ!
পরবর্তী পোস্ট
গুনী নির্মাতা কাজী হায়াৎ আইসিইউতে

Related Posts